প্রাণের ঝুঁকি নিয়েই গভীর চুম্বন, ছবি ভাইরাল হতেই !…

সুউচ্চ বিল্ডিংয়ের ছাদ। ঠিক নিচেই ওঁত পেতে রয়েছে মৃত্যু। এক পা এদিক থেকে ওদিক হলেই সব শেষ। ঠিক এমনই দুর্গম জায়গায় বসে পরস্পরের ঠোঁটে ঠোঁট রেখেছেন দুই পার্কোর অ্যাথলিট। আর যুগলের সেই মুহূর্তকে লেন্সবন্দি করেছেন চিত্রগ্রাহক। কিন্তু ‘ভয়ংকর সুন্দর’ সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই বিপাকে পড়লেন যুবক-যুবতী। অশালীন ছবি পোস্টের দায়ে গ্রেপ্তার করা হয় তাঁদের।

পার্কোর খেলাটির জন্ম ৯০-এর দশকে ফ্রান্সে। যেখানে দুর্গম স্থানে অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে বিভিন্ন স্টান্ট শেখানো হয়। বিশেষ করে শহরের উঁচু বিল্ডিংয়ের ছাদের একেবারে শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে স্টান্ট করতে হয়। এই স্পোর্টস তেহরানেও বেশ ভালই জনপ্রিয়। সে ছবিই ধরা পড়েছে আলিরেজার পেজে চোখ রাখলে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, কীভাবে ছাদের পাঁচিল থেকে শূন্যে পা ঝুলিয়ে ভয়ংকর পজিশনে বসে চুম্বনরত যুগল।

ছবিগুলি পোস্ট করার পর থেকে অনেকেই তাঁদের সাহসিকতার প্রশংসা করেছেন। কিন্তু দেশের আইনের চোখে তাঁরা হয়ে উঠেছেন ‘ভিলেন’। ধর্ম ও সংস্কৃতিকে তোয়াক্কা না করে এমন ছবি পোস্ট করার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় দু’জনকে। রাজধানীর পুলিশ প্রধান হোসেন রহিমী বলেন, “তেহরানের সাইবার পুলিশই ওঁদের গ্রেপ্তার করেছে। তাঁরা যে অশালীন আচরণ করেছেন, তার নিয়ম বিরুদ্ধ। আমাদের আশা আদালতই এঁদের ন্যায় বিচার করবে।”

গত সোমবার আলিরেজাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। যদিও তাঁর সঙ্গীর হাতে হাতকড়া পড়ে বৃহস্পতিবার। তবে তাঁদের গ্রেপ্তারির বিরুদ্ধে সরব হয়েছে নেটদুনিয়া। পুলিশদের একহাত নিয়ে অনেকেই লিখেছেন, পার্কোর অ্যাথলিটরা তো কোনও অপরাধমূলক কাজ করেননি। তাই এভাবে তাঁদের কারাবন্দি রাখা অনুচিত। অনেকেই তাঁকে মুক্তির দাবিতে সরব হয়েছেন।