পণ্য সরিয়ে ফেলেছে তিনটি প্ল্যাটফর্ম।

আমাজন, গুগলআমাজন, গুগলনব্য নাৎসি ও উগ্র শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদীদের বিভিন্ন পণ্য বিক্রি হচ্ছিল আমাজন, গুগল ও উইশ প্ল্যাটফর্মে। বিবিসি ক্লিকের এক তদন্তে বিষয়টি উঠে আসার পর এসব পণ্য সরিয়ে ফেলেছে এ তিনটি প্ল্যাটফর্ম।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়, অনলাইন প্ল্যাটফর্মে উগ্র শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদীদের পতাকা, নব্য নাৎসিদের বই ও উগ্র শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদীদের সংগঠন কু ক্লাক্স ক্লানের (কেকেকে) বিভিন্ন পণ্য বিক্রির জন্য রাখা ছিল। আমাজন ও উইশের অ্যালগরিদম উগ্র শ্বেতাঙ্গদের অন্য পণ্য কেনার জন্য পরামর্শও দিচ্ছিল।

বিবিসিকে ওই তিনটি কোম্পানিই বলেছে, তাদের প্ল্যাটফর্মে বর্ণবাদে ব্যবহৃত হয়—এমন পণ্য বিক্রি নিষিদ্ধ।

এ প্রসঙ্গে ঘৃণিত বক্তব্যবিরোধী সংস্থা অ্যান্টিডিফেমেশন লিগের (এডিএল) ওরেন সেগাল বলেন, কোম্পানিগুলোকে সব সময় তাদের অ্যালগরিদমকে কী পরামর্শ দেওয়া হবে, তা শেখাতে হবে। একে দায়িত্বশীল হতে দেখাতে হবে।

আমাজনে বিক্রির জন্য রাখা নব্য নাৎসিদের পতাকার নিচে একজন পর্যালোচনায় লিখেছেন, এটা নব্য নাৎসিদের পতাকা। আমাজনের এটা বিক্রি করে মুনাফা করার প্রয়োজন নেই। এ ছাড়া নানা বিতর্কিত জিনিস বিক্রি হচ্ছে আমাজনে।

এ ধরনের চিহ্ন ও পতাকা নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে বন্দুক হামলাকারীকে পরতে দেখা গিয়েছিল। ২০১৯ সালের ওই হামলায় ৫১ জন নিহত হন।

আমাজনের পক্ষ থেকে এসব পণ্য এখনো সরিয়ে ফেলা হয়েছে। অনলাইনে পণ্য বিক্রেতা উইশের পক্ষ থেকেও কু ক্লাক্স ক্লান থিমের বিভিন্ন পণ্য সরিয়ে ফেলা হয়েছে। গুগল বলেছে, তাদের গুগল বুকস ও প্লে স্টোর থেকে বর্ণবাদী সব কনটেন্ট সরানো হয়েছে। তাদের প্ল্যাটফর্মে ঘৃণা ছড়ায়—এমন কোনো বিজ্ঞাপন বা পণ্য তারা প্রদর্শন করবে না